নারীদের যত গোলকধাঁধাময় জবাব

0
537

অনেকেই আক্ষেপ করে বলে থাকেন, নারীর মন বোঝা বড় দায়! আসলেই কি তাই? হ্যা নারীরা কিছু কিছু ক্ষেত্রে এমন কিছু জবাব দিয়ে থাকেন যা আপনি বুঝতে পারলে ঠিক আছে আর যদি না বুঝে ভুল সিদ্ধান্ত নেন আখের পস্তাতে হবে আপনাকেই!
অনেক সময়েই মেয়েদেরকে নিজের গোলোকধাঁধাঁয় নিজেকেই পড়তে দেখা যায়। হয়তো দেখা গেল মুখে বলছেন একটি কথা কিন্তু তাদের অন্তরে অন্য একটি কথা বাজছে। মেয়েরা চান তাদের অন্তরের কথাটা যেন ছেলেরা বুঝতে পারেন। যা ছেলেদের পক্ষে বোঝা আসলেই অসম্ভব হয়ে যায়। চলুন এমন কিছু বিষয় জেনে নিই-

‘তুমি যা চাও’
এই বিষয়টি বেশিরভাগ ক্ষেত্রে দেখা যায়, আপনি আপনার সঙ্গিনীকে কোন ক্ষেত্রে মতামত বা পছন্দ করতে বললেন, তিনি আপনাকে জানাবে ‘তুমি যা চাও’ আসলেই কি আপনি যা চান তিনি তাই চান? এটা ভাবলে ভুল করবেন। কারণ আপনার স্ত্রী বা বান্ধবী ঠিকি মনে মনে কি চান স্থির করে রেখেছেন আপনার মন বুঝতেই এবং আপনি তাকে কতোটা প্রাধান্য দিচ্ছেন তা জানতেই তার বলা ‘তুমি যা চাও’। অতএব, এমন পরিস্থিতিতে অবশ্যই আপনার সঙ্গিনী মনে মনে কি চায় তা বুঝার চেষ্টা করুন। তা না হলে আপনি যা চান তা করলে হিতে বিপরীত হওয়ার সম্ভাবনা প্রবল।

‘আচ্ছা যাও/ করো’
এই কথাটি প্রায় সকল স্ত্রী এবং প্রেমিকাকে বলতে দেখা যায়। আপনি কিছু একটা করতে চাচ্ছেন, এক্ষেত্রে আপনার সঙ্গিনীর মতামত জানতে চাইলেন, তিনি আপনাকে বললেন ‘আচ্ছা যাও/ করো’! আপনি এক লাফে করা শুরু করে দিলেন। আপনি ভুল করলেন, আপনার সঙ্গিনী আপনাকে ‘আচ্ছা যাও/ করো’ বলে কিন্তু করতে বলেনি, তিনি করো এর সাথে আচ্ছা যাও লাগিয়েছেন এতেই বুঝতে হবে বিষয়টি ঘাপলা আছে, আপনার সঙ্গিনী মন থেকে আপনাকে কাজটি করতে বলেনি। আপনি তার পরও করলে দায় আপনার!

‘আমি ঠিক আছি’
দুজনার মাঝে রাগারাগি, এক পর্যায়ে অবশ্য আপনার নানান চেষ্টায় মান ভেঙেছে, আপনাকে তিনি জানালেন ‘আমি ঠিক আছি’ আপনি এটা শুনেই নিজের কাজে ব্যস্ত হয়ে গেলেন, ভুল করলেন। আপনার সঙ্গিনী মোটেই ঠিক নেই তাই তিনি বলেছেন অভিমান করেই আমি ঠিক আছি। এক্ষেত্রে আপনাকে তাকে নিয়ে আরও ভাবতে হবে, তাকে সময় দিতে হবে এমন টাই বুঝাচ্ছে।

‘কিছু না’
অফিস বা বাইরে থেকে এসেই সঙ্গিনীর মন খারাপ দেখলেন! জানতে চাইলেন কি হয়েছে? উত্তরঃ ‘কিছু না’ আপনি ভাবলেন আসলেই কিছুনা! ভুল করলেন। আপনার সঙ্গিনীর কিছু একটা হয়েছে ওই কিছুনা থেকেই আপনাকে বুঝে নিতে হবে। মেয়েরা কখনোই মুখ ফুটে বলবেনা কি হয়েছে, আপনার ভালোবাসা দিয়েই আপনাকে জেনে নিতে হবে।

‘আচ্ছা ঠিক আছে’
এই জবাব সব সময় ভয়ংকর একটি আভাষ দিয়ে থাকে। আপনি কোন কারনে আপনার সঙ্গিনীর সাথে দ্বিমত, হঠাত আপনার সঙ্গিনী আপনাকে জানালেন ‘আচ্ছা ঠিক আছে’ এর মানে কিন্তু কিছুই ঠিক নেই! আপনাকে বিষয়টি নিয়ে আরও ভাবতে হবে, তার সাথে আলোচনা চালিয়ে যেতে হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here