১১ বছর পর শচীনের গোপন খবর প্রকাশ!

0
16648

যত বেশি অনুশীলন করবেন, তত বেশি সফল হবেন -একজন খেলোয়াড়ের কাছে এটাই স্বাভাবিক নিয়ম। আর নিজের সেরাটা উজাড় করে দিবেন দলকে। কিন্তু ২০০৩ বিশ্বকাপে এর উল্টো পথে হেঁটেছেন শচীন টেন্ডুলকার!

রাহুল দ্রাবিড় ১১ বছর পর শচীনের তেমনই এক গোপন তথ্য প্রকাশ করেছেন। দক্ষিণ আফ্রিকায় ২০০৩ বিশ্বকাপে নেটে একটিও বল খেলেননি ক্রিকেট ঈশ্বর!

২০০৩ বিশ্বকাপের সৌরভ গাঙ্গুলীর ভারত খেলেছিল ফাইনালে।  টুর্নামেন্টে অসাধারণ পারফর্ম করা ভারতীয় ক্রিকেট দল শিরোপা নির্ধারণী ম্যাচে অস্ট্রেলিয়ার কাছে হেরে কাপ বিসর্জন দিয়েছিল।

সেই বিশ্বকাপে ব্যাটে দলকে নেতৃত্ব দিয়েছিলেন লিটল মাস্টার। বিশ্বকাপে সর্বাধিক রানের রেকর্ড গড়েছিলেন ৬৭৩ রান করে। তিনিই কোয়ার্টার ফাইনালে পাকিস্তানের বিপক্ষে ম্যাচ জেতানো ইনিংস খেলেছিলেন।

ওয়াসিম আকরাম, ওয়াকার ইউনূস, শোয়েব আখতারের বল পিটিয়ে বার বার সীমানাছাড়া করেছিলেন নেটে কোনো বল না খেলে।

রাহুল দ্রাবিড় জানান, টেন্ডুলকারের প্রস্তুতি সময়ের সঙ্গে সঙ্গে পাল্টাত। ২০০৩ বিশ্বকাপ চলাকালীন নেটে একটিও বল খেলেনি সে। পুরো টুর্নামেন্টেই নকিং করেছিল। যা দেখে আমরা অবাক হয়েছিলাম। আমি জিজ্ঞেস করায় সে বলেছিল, ‘আমি রানের মধ্যে রয়েছি। সুতরাং নেটে গিয়ে সেটা হারাতে চাই না।’

ভারতীয় এই ক্রিকেট ঈশ্বর গত ২০১৩ নভেম্বরে ক্রিকটকে বিদায় জানিয়েছেন। কিন্তু এখনো তাঁর আরাধনা সর্বত্র! স্কুল পালালে যেমন রবীন্দ্রনাথ হওয়া যায় না, তেমনি নেটে প্রাকটিস না করে বিশ্বকাপে খেলতে গিয়ে সবাই কিন্তু শচীন হতে পারবেন না। মনে রাখা দরকার, টেন্ডুলকার তো টেন্ডুলকারই! তাই এই খবরে অবশ্য বর্তমান খেলোয়ারেরা শচিনের মতো নিজের অনুশীলন বাদ দিবে না নিশ্চয়।