নাক দেখে মানুষ চেনার পদ্ধতি

0
2009

অনেকেই বলেন যে চেহারা দেখেই নাকি একজন মানুষের চরিত্র সম্পর্কে বেশ ধারণা পাওয়া যায়! মানে মানুষটি রাগি, নাকি কোমল স্বভাবের; হাসিখুশি, নাকি গম্ভীর-সবই চেহারা দেখে বুঝে নেন অনেকে। তবে এবার মানুষকে বোঝার আরো সহজ চিহ্ণ নির্ধারণ করেছেন গবেষকরা। তাঁরা বলছেন, যখন কারো সঙ্গে আপনার প্রথম দেখা হবে তখন ভালো করে খেয়াল করবেন তাঁর নাকের গঠন। আর তাতেই নাকি আপনি বুঝতে পারবেন মানুষটি কী রকম!
তো চলুন জেনে নিই, নাক দেখে মানুষ চেনার পদ্ধতি।

সোজা নাক
সোজা নাকের অধিকারী ব্যক্তিরা হন ভীষণ অনুপ্রেরণাদায়ী। স্বভাবে এরা গোছানো এবং কাজে দক্ষ। এমনকি সংকটের সময়েও এরা নিখুঁতভাবে কাজ করতে পারেন।

চওড়া নাক
যাঁদের নাক চওড়া হয়, তাঁদের থাকের নেতৃত্বের দারুণ গুণ। সেই সঙ্গে এঁদের ব্যক্তিত্বও হয় কঠিন।
 
মাংসল নাক
এই ধরনের নাকের গোড়টা সরু হলের পুরো নাকের দৈর্ঘ্য বেশ বড় হয়। এই ধরনের আকৃতির নাক যাঁদের, তাঁরা খুব দ্রুত চিন্তা করতে পারেন এবং জানেন কীভাবে জলদি কাজ করতে হয়। বেশির ভাগ সময়ই এঁরা বেশ চালাক হন।

চ্যাপ্টা নাক
চ্যাপ্টা নাকের অধিকারীরা হন দয়ালু আর আশাবাদী স্বভাবের। এঁরা সেই ধরনের মানুষ, যাঁদের ভালোবাসা দেওয়ার ও নেওয়ার ক্ষমতা প্রচুর। এই ধরনের নাকওয়ালা ব্যক্তিরা পরীক্ষামূলক কাজ করতে ভালোবাসেন। এঁরা উদ্যমী স্বভাবেরও হন।

বাঁকা নাক
নিচের দিকে বাঁকানো নাক থাকে যেসব ব্যক্তিদের, তাঁরা সাধারণত নিজের মতো করে জীবনযাপন করেন। কোনো নেতাকে অনুসরণ করা এদের স্বভাবে নেই। বেশির ভাগ সময় এরা বিদ্রোহী স্বভাবের হন।