ডায়াবেটিক রোগীদের জন্য রসগোল্লা

0
695

চিনি খাওয়া বাদ দেওয়া মানেই আবার মিষ্টি জাতীয় খাবার বাদ দেওয়া। কিন্তু তাই বলে কি রসগোল্লাও খাওয়া বাদ জাবে? মোটেই না! আপনি যে আর্টিফিশিয়াল সুইটনার ব্যবহার করেন সেটা দিয়েই বাড়িতে তৈরি করে নিন চমৎকার সুগার ফ্রি রসগোল্লা।

উপকরণ
–   দেড় লিটার টাটকা গরুর দুধ
–   ১৯ গ্রাম আর্টিফিশিয়াল সুইটনার
–   লেবুর রস ২ টেবিল চামচ (দুই টেবিল চামচ পানির সাথে মেশানো)

প্রণালী
১) দুধ ফুটিয়ে নিন, মাঝে মাঝে অল্প নাড়ুন যাতে ধরে না যায় বা সর না পড়ে। ফুটে গেলে চুল বন্ধ করে দিন এবং কয়েক মিনিট একটু ঠাণ্ডা হতে দিন।

২) ওপর থেকে অল্প অল্প করে ঢালতে থাকুন লেবুপানি এবং ক্রমাগত নাড়তে থাকুন যতক্ষণে দুধ কেটে না যায়।

৩) দুধটা কেটে গেলে একটা পাতলা কাপড়ে ছেঁকে নিন। পানিটা চলে গেলে ওপরে ঠাণ্ডা পানি ঢালুন, এতে টক ভাবটা চলে যাবে। এরপর কাপড়ের কোনাগুলো একসাথে বেঁধে ভালো করে চিপে নিন। ছানাটাকে কাপড়ে বেঁধে কোথাও ঝুলিয়ে রাখুন যাতে কোনো পানি থাকলে সেটাও ঝরে যায়। এভাবে রেখে দিন আধা ঘন্টা।

৪) বড় একটা সসপ্যানে ৯ কাপ পানির সাথে মিশিয়ে নিন আর্টিফিশিয়াল সুগারটা। গরম করে নিন যতক্ষণ না ভালোমত ফুটতে থাকে।

৫) আধা ঘন্টা ছানা ঝুলিয়ে রাখার পর এটাকে বের করে নিন। এটা হাতে নিলে ভেঙ্গে ভেঙ্গে যাবে। যদি না ভাঙ্গে তবে ভেতরে এখনো পানি আছে, চিপে পানি বের করে নিন। ছানা কিছুটা ভেজা ভেজা থাকবে কিন্তু ভেতরে বেশি পানি থাকবে না। ছানাটাকে ভেঙ্গে চটকে নিন। ছানা দিয়ে ইচ্ছেমত আকৃতির কতোগুলো বল তৈরি করে নিন।

৬) আর্টিফিশিয়াল সুগারের ফুটন্ত শিরায় ফেলে দিন গোল্লাগুলোকে। ঢেকে রাখুন ৫ মিনিট। এরপর ঢাকনা খুলে আরও ১০ মিনিট রাখুন। এরপর গোল্লাগুলোকে সরিয়ে একটা বোলে নিয়ে নিন। শিরাটাকে আরও ৫ মিনিট ফুটিয়ে ঘন করে রসগোল্লার ওপর ঢেলে দিন।

৭) রুম টেম্পারেচারে ঠাণ্ডা করে নিন। এরপর ফ্রিজে রেখে দিতে পারেন অথবা খেতে পারেন গরম গরম!