Sunday, May 19, 2024
Google search engine
লাইফ ষ্টাইলযে ৬টি কষ্টের কথা শুধু বিবাহিত মেয়েরাই জানে

যে ৬টি কষ্টের কথা শুধু বিবাহিত মেয়েরাই জানে

বিয়ের পর অনেক সময় অনেক মেয়ের জীবনে নেমে আসে কালো আধার। আবার কারো জীবন হয় সুখের। তবে অনেকে বিবাহিত মেয়ের জীবনে কখনো কখনো এমন কিছু কষ্ট আসে যা সে কারো কাছে না প্রকাশ করে একা একাই নিরবে কাঁদে।  বিবাহিত মেয়েদের জীবনে অনেকগুলো কষ্টে মধ্যে নিচে উল্লেখিত ছয়টি কারণ অন্যতম-

১) মা-বাবা, পরিবারকে ছেড়ে সম্পূর্ণ নতুন একটি পরিবারে নিজেকে মানিয়ে নেয়ার চেষ্টা যে আসলে কত কঠিন একটা বিষয়, সেটা কেবল বিয়ের পরই বুঝতে পারেন মেয়েরা। আর তাই তো বিয়ের পর পরিবারের জন্য টান এত বেড়ে যায়।

২) ছেলেদের জন্য ভালোবাসা যেমন, মেয়েদের জন্য ভালোবাসা আসলে তেমন নয়। বিয়ের কিছু বছর পর স্ত্রীর প্রতি অনেক স্বামীরই মনযোগ কমে আসে। বিষয়টা ভালোবাসার অভাব কখনো, কখনো আবার স্রেফ ব্যস্ততা বা দিনযাপনের অভ্যাস। অন্যদিকে বিয়ের বয়স বাড়ার সাথে স্ত্রীর বরং মনযোগ পাবার আগ্রহ বাড়ে। স্বামীর অবহেলায় মনে মনে দগ্ধ যে কোন বিবাহিতা নারীকে জীবনের কোন না কোন পর্যায়ে হতেই হয়।

৩) আমাদের সমাজে পুরুষেরা স্ত্রীদের সাংসারিক দায়িত্ব ভাগ করে নেন না। বিয়ের পর একটা পুরুষের জীবনে যেটুকু পরিবর্তন আসে, তার চাইতে অনেক বেশী বদলে যায় নারীর জীবন। সংসারের সমস্ত দায়িত্ব একা পালন করতে করতে নারী একটা বয়সে গিয়ে একাকীত্ব আর হতাশায় ভুগতে শুরু করেন। বিশেষ করে সন্তানেরা একটু বড় হয়ে যাবার পর।

৪) আরেকটি কষ্ট আছে, যা সন্তান কেন্দ্রিক। সন্তান না হওয়া, সন্তানের অসুস্থতা, সন্তান বড় হয়ে যাওয়ার পর নানা ভাবে মাকে অবহেলা আর কষ্ট দেয়া ইত্যাদি ব্যাপারগুলো কেবল বিবাহিতা নারীদের জীবনেই আসে।

৫) পৃথিবীতে এমন কোন পুরুষ নেই যিনি কিনা অন্য নারীদের দিকে তাকান না বা কখনো তাকান নি। বিয়ের পর কখনো না কখনো তৃতীয় কোন নারীর আগমন নিয়ে কষ্ট পেতে হয় স্ত্রীদের। এটা হতে পারে যে স্বামী অন্য নারীর প্রতি আগ্রহী, আবার এমনও হতে পারে যে অন্য কোন নারী স্বামীর প্রতি আগ্রহী। দুই ক্ষেত্রেই কষ্ট স্ত্রীকেই ভোগ করতে হয়।

৬) বিবাহিত জীবনে যতই সুখী হোক না কেন, নিজের মনের গহীনে তরুণী বয়সের উচ্ছল জীবনের জন্য একটা হাহাকার পুষে রাখেন সব নারীই। দায়িত্বহীন আনন্দময় জীবন, নিজের মত সব কিছু করে ফেলার শাধিনতাম নিজের সেই দীপ্তিভরা যৌবন, সব কিছুর জন্যই কখ কখনো মন খারাপ হয়।

আরও পড়ুন-

এমন আরও কিছু আর্টিকেল

Google search engine

জনপ্রিয়